ই পর্চা

ই-পর্চা www.eporcha.gov.bd – ইন্টারনেটের জমির খতিয়ান নাম্বার দিয়ে মালিকানা যাচাই, খতিয়ান দিয়ে পর্চা ডাউনলোড করার নিয়ম

আমাদের এই সাইটে আপনার জমির পর্চা খুব সহজে ডাউনলোড করতে পারবেন, আমরা আপনাদের জন্য এই সাইটে জমির পর্চা কিভাবে যাচাই করবেন এবং সেখান থেকে আপনার জমির খতিয়ান কিভাবে যাচাই করবেন সে বিষয়গুলো পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তুলে ধরেছি। অনলাইন ই পর্চার আবেদন এবং সেখান থেকে খতিয়ান কিভাবে যাচাই করবেন বিষয়গুলো বুঝতে আমাদের সম্পূর্ণ লেখাটি ভালভাবে পড়ুন।

অনলাইন ই পর্চা কি

অনলাইন হচ্ছে ইন্টারনেট ভিত্তিক একটি সেবা, জনগণের ভূমি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য যেমন খতিয়ান যাচাই, জমির মালিকানা যাচাই এই কার্যক্রমগুলো পরিচালিত হবে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। বাংলাদেশ সরকার জনগণের ভূমি অফিসে অহেতুক দৌড়াদৌড়ি করতে এই পদক্ষেপ নিয়েছেন এখন ঘরে বসে আপনি আপনার জমির যাবতীয় কাজ করতে পারবেন। অনলাইন পর তার মাধ্যমে আপনি খুব সহজে ঘরে বসে আপনার জমির যাবতীয় তথ্য যাচাই-বাছাই করতে পারবেন।

জমির ই পর্চা ডাউনলোড

ডাউনলোড করার জন্য প্রথমে আপনাকে অ্যান্ড্রয়েড ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটার থাকতে হবে, উক্ত মোবাইল ফোন বা ল্যাপটপে ইন্টারনেট সংযোগ দেয়া অথবা ওয়াইফাই সংযোগ দিয়ে যে কোন একটি ব্রাউজার এ প্রবেশ করুন। এবং সেখান থেকে আমাদের দেওয়ার নিম্নোক্ত ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে www eporcha govbd এই লিঙ্ক থেকে আপনি আপনার জমির পর্চা ডাউনলোড করতে পারবেন খুব সহজে।

www eporcha gov bd ওয়েবসাইট

বাংলাদেশ সরকার দেশ ডিজিটাল আইন এবং এর সকল কার্যক্রম অনলাইন এর আওতায় আনার লক্ষ্যে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে সরকারি অফিস-আদালত ভূমি অফিস বিভিন্ন মন্ত্রনালয় এবং সচিবালয় সকল অফিসের কার্যক্রম অনলাইনে আওতায় নিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ভূমি অফিসের খতিয়ান সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যাদি এই ওয়েবসাইটের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করে আপনি আপনার জমির মালিকানা যাচাই, খতিয়ান যাচাই, আর এস ও সি এস খতিয়ান যাচাই করতে পারবেন।

জমির ই খতিয়ান যাচাই করার নিয়ম

উপরোক্ত বর্ণিত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনার সামনে একটি ইন্টারফেস আসবে, সেখান থেকে নাগরিক কর্নার বাটনটি ক্লিক করুন এবার একটি ফর্ম আসবে আপনার সামনে, উক্ত ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করুন সেখানে আপনার বিভাগ, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন, গ্রাম, এবং আপনার জমির মৌজা উল্লেখ করুন। ফরমটি ফিলাপ করার সময় নিশ্চিত হোন আপনি যে তথ্যগুলি দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ নির্ভুল অন্যথায় আপনার আবেদন বাতিল হয়ে যাবে।

এরপর খতিয়ান নম্বর ঘরে আপনার খতিয়ান নাম্বার এবং ক্যাপচা কোড ঘরে ক্যাপচা নাম্বারটি লিখে অনুসন্ধান বাটনটি ক্লিক করুন। উপরিক্ত তথ্যগুলো সঠিক এবং নির্ভুল হলে আপনাকে জমির মালিকের নাম দেখানো হবে, এবার এখান থেকে আপনি আবেদন বাটনে ক্লিক করে আপনার জমির খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি বা অনলাইন কপি নিতে পারবেন।

জমির খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পেতে হলে আপনাকে একটি অনলাইন আবেদন করতে হবে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন বা ল্যাপটপের মাধ্যমে। সেক্ষেত্রে আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম, নাম্বার, ইমেইল এড্রেস, জন্ম তারিখ, ও মোবাইল নম্বর সরবরাহ করতে হবে। অবশ্যই সকল তথ্য সম্পূর্ণ সঠিক হতে হবে অন্যথায় আপনার জমির খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি ভুল ঠিকানায় চলে যাবে।

আমাদের পোস্টটি ভালো লাগলে, এবং এরকম পোস্ট আরও পেতে আমাদের পেজটি অনুসরণ করে এবং মন্তব্য করুন।

Rahat Ali

I'm Rahat Ali here with you. I write about Informative content. If you are looking for Education, Travel, Telecom, official contact info of any Company, Organization, or Person, let's read my content on this website.
Back to top button
Close