Fashion Designer

হিজাব বাধার খুব সহজ নিয়ম

মুসলিম ধর্মের নিয়ম অনুযায়ী প্রতিটি মেয়ে ও মহিলাকে হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। যখন নারীরা বাইরে বাইরে কাজের উদ্দেশ্যে গমন করবে। তখন অবশ্যই হিজাব পরিধান করতে হবে। হিজাব পড়লে পূর্ণাঙ্গ পর্দা মানা হয়। তাই বেশিরভাগ নারী পর্দার জন্য হিজাবকে বেছে নেন। তবে হিজাব পরতে গিয়ে অনেক সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষ করে যারা নতুন অবস্থায় হিজাব পরিধান করে। তারা নিজেরা ভালো করে হিজাব পড়তে পারে না। তাদের হিজাব পরিধান করার সঠিক নিয়ম কানুন আমরা জানিয়ে দেবো।

বর্তমান বাংলাদেশের মেয়েরা হিজাব স্টাইল করে পরিধান করতে পছন্দ করে। স্টাইল হিসেবে হিজাব অনেক পরিচিত। অনেকে চাইলে জামার ওড়না দিয়ে ও দুপাট্টা করে নিজে হিজাব পড়তে পারে। সবথেকে ভালো উত্তম হয় একটা বড় ওড়না অথবা তিন কোনা স্কার্ফ মাথায় সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে পারেন। তারপর পিন দিয়ে দুই সাইট আটকাতে পারে। যারা স্টাইল হিসেবে হিজাব পরিধান করতে চান তারা নিচের পদ্ধতিগুলো মানতে পারেন।

বাজারে বিভিন্ন ধরনের রংগের হিসাব পাওয়া যায়। তবে সবার পছন্দের রং কালো ।তাই হিজাবে সবাই কালো রংয়ের সবাই কিনতে চান। যারা ওড়না দিয়ে হিজাব পরিধান করতে চান। কিভাবে হিজাব পরতে হয় করবেন আজকের এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন। তাই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে করে দেখবেন ও জানবেন।

হিজাবের মূল্য

সাশ্রয়ী মূল্যে হিজাব কিনতে চাইলে, ঢাকার মধ্যে বেশ কয়েকটি মার্কেট সরাসরি যেতে পারেন। যেখানে খুব কম দামে ভালো কোয়ালিটির হিজাব পাওয়া যায়। যারা বিভিন্ন কাজে ঢাকা যান,তারা নিউমার্কেট, বায়তুল মোকাররম মসজিদ মার্কেট,মগবাজার ও চাঁদনী চক থেকে হিজাব ক্রয় করতে পারেন। সেখানে মাত্র ১৫০ টাকা থেকে হিজাব গুলো নিতে পারবেন । তবে ভালো হিজাব পরা করতে হলে ২০০০-২৫০০ টাকা গুনতে হবে। অনেকগুলো রেডিমেড হিজাব রয়েছে, যেগুলোর দাম ৫০০ থেকে ৭০০ টাকার ভিতরে ।

শাড়ির সাথে হিজাব ম্যাচিং করা কালার

  • যারা দিনের বেলা হিজাব পরিধান করে। তারা হালকা কালো রংয়ের হিজাব পরিধান করতে পারে।
  • জমকালো পার্টিতে গেলে হিজাব পরিধান করে গেলে ফুলে থাকে, ফেঁসে যায় অথবা সিন্থেটিক হিজাব পরা যাবেনা।
  • হাত ঘড়ি, কানের দুল, ব্যাগ, জুতা, জামার রং এর সাথে ম্যাচিং করে হিজাব পরতে পারেন।
  • সাদা রং এর সাথে গোলাপি রঙের হিজাব খুব ফুটে ওঠে। তাই সাদার সাথে গোলাপীর কম্বিনেশন করে হিজাব পড়তে পারেন।
  • যখন শাড়ির সাথে হিজাব ম্যাচিং করে পড়বেন। তখন ব্লাউজের গলা ছোট করে নেবেন। হিজাব দিয়ে গলা ও ব্লাউজ পুরোটা ঢেকে নিলে খুব সুন্দর মানাবে।

ওড়না বা স্কাফ দিয়ে হিজাব পরা স্টাইল এর নিয়ম :

  • একটি স্কার্ফ অথবা ওড়না নিয়ে মাথার উপরে বসাতে হবে। ওড়নার নিচের অংশ ডান সাইড ছোট, বাম সাইড বড় রাখতে হবে ।
  •  ওড়নার দুই সাইডের কোণা ঘাড়ের পেছনের অংশে নিয়ে পিন দিয়ে ভালো করে আটকাতে হবে।
  • এবার পেছন থেকে ডান সাইডের ওড়নাটা সামনে আনুন।
  • ওড়না ডান সাইড থেকে বাম সাইডে নিন।
  • ওড়নার অংশটি কানের উপরে পিন দিয়ে ভালো ভাবে আটকিয়ে নিন।
  • এবার বাম সাইডে থাকা ওড়নার অংশটি নিন।
  • বাম সাইডের ওড়নার অংশ ওড়নার নিচ থেকে সরিয়ে ডান সাইডে আনুন।
  •  ডান সাইডে ওড়না এনে ওড়নার ভাঁজ খুলে ফেলুন।
  • এবার ওড়নার অংশটি উপরে তুলুন।
  • ওড়নার অংশ উপরে তোলার পর হিজাবের প্রধান পার্টটা সামনে আনুন।
  • ওড়নার বড় অংশ টুকু উপরে তুলে চুলের খোপা কভার করে আনতে হবে।
  • প্রথমে কানের যে অংশে পিন লাগানো হয়েছিল, সেই অংশে বড় সাইডের ওড়না এনে বসাতে হবে।
  •  কানের উপরে বাকি অংশের ওড়না কে পিন দিয়ে সুন্দর করে সেট করতে হবে।

কনট্রাক স্টাইলে হিজাব পড়ার নিয়ম :

  1. প্রথমে একটি মেয়েদের চুল ঢাকার টুপি ( কালার ম্যাচিং জামার সাথে ) পরতে হবে। গলায় ছোট (কনট্রাস্ট) স্কার্ফ নিয়ে
  2. গলার পেছনে বাঁধতে হবে। তারপর জামার ওড়না মাথার উপরে মধ্যম ভাগে দিতে হবে, যাতে করে নিচের টুপি দেখা যায়। ওড়নার এক সাইড বড় আরেক সাইড ছোট রাখতে হবে।
  3. এবার ওড়নার দুই সাইড নিয়ে গলার পেছনে বাঁধতে হবে।
  4. এবার ওড়নার ছোট অংশ সামনে আনতে হবে।
  5. সামনে এনে, অপর প্রান্তের কাঁধে পিন দিয়ে আটকিয়ে দিতে হবে।
  6. এবার ওড়নার বড় অংশ সামনে আনতে হবে।
  7. বড় অংশ টি ভালো ভাবে মাথার উপর পেঁচিয়ে, কানের উপরের অংশে পিন লাগিয়ে দিতে হবে।
  8. এটা হল কনট্রাস্ট স্টাইলে হিজাব পরার ফাইনাল লুক।

Rahat Ali

I'm Rahat Ali here with you. I write about Informative content. If you are looking for Education, Travel, Telecom, official contact info of any Company, Organization, or Person, let's read my content on this website.
Back to top button
Close